কাল থেকে ঐতিহাসিক মুড়ারবন্দ দরবার শরীফে ওরস শুরু হচ্ছে-
এসএম সুরুজ আলী ॥ আগামীকাল শুক্রবার থেকে ৩দিনব্যাপী চুনারুঘাট উপজেলার ঐতিহাসিক মুড়ারবন্দ দরবার শরীফে ৬৯৬ তম বাৎসরিক পবিত্র ওরস শুরু হচ্ছে। ওরস উপলক্ষে এক সপ্তাহ ধরে মাজারের চারপাশে কাফেলা নির্মাণ করা হচ্ছে। দূরপাল্লার আশেকান ভক্তরা গরু-ছাগল নিয়ে মাজারে এসেছেন। ওরস উপলক্ষে ফুল দিয়ে মাজার সাজানো হয়েছে। মাজারে সার্বিক পরিস্থিতি দেখভাল করছেন মোতাওয়াল্লী আলহাজ্ব সৈয়দ সফিক আহম্মেদ (সফি) চিশ্তী। গতকাল সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে ওরসকে কেন্দ্র করে মাজারের আশপাশের এলাকাজুড়ে বেশ কয়েকটি কাফেলা তৈরী করা হয়েছে। পাশাপাশি চারপাশ জুড়ে মেলা বসেছে। ফার্নিচারের দোকানও বসেছে। মুড়ারবন্দ দরবার শরীফের মোতাওয়াল্লী আলহাজ্ব সৈয়দ সফিক আহম্মেদ (সফি) চিশ্তী জানান, হযরত শাহজালাল (রঃ) এর সফরসঙ্গী সিলেট এবং তরফ বিজয়ী সিপাহসালার (মদনী) হযরত সৈয়দ নাছির উদ্দিন (রঃ) ১৩০৩ খ্রিঃ সিলেট বিজয়ের পর তরফ রাজ্য বিজয় করেন। ১৩০৪ খ্রিঃ মুড়ারবন্দে তরফ রাজ্যের শাসনকর্তা হিসেবে নিযুক্ত হয়ে বসতি স্থাপন করেন এবং তিনি মৃত্যুর পূর্বে বলেছিলেন তার দেহ মোবারক পূর্ব-পশ্চিমে দাফন করার জন্য কিন্তু তার সঙ্গীরা এ আদেশ কেহ মানল না। শরিয়তের বিধান মতে মাজার উত্তর-দক্ষিণে দাফন করেন। কিন্তু দাফনের পর লোকজন ৪০ কদম দূরে আসার পরে মাজার শরিফ অলৌকিকভাবে ঘুরে পূর্ব-পশ্চিমে হয়ে যায়। প্রতি বছর দেশের বিভিন্ন স্থান হতে জাতি, ধর্ম, গোত্র নির্বিশেষে উক্ত মুড়ারবন্দে সিপাহসালার (মদনী) হযরত সৈয়দ নাছির উদ্দিন (রঃ), হযরত সৈয়দ শাহ ইসরাইল ওরফে শাহ বন্দেগী (রঃ), হযরত সৈয়দ শাহ ইলিয়াছ ওরফে কুতুবুল আউলিয়া (রঃ) সহ ১২০ জন পীর আউলিয়ার মাজার শরীফে লক্ষাধিক আশেকান ভক্ত জিয়ারত ও পবিত্র বার্ষিক ওরসে আসেন।
উক্ত পবিত্র ওরসের পূর্বে শতাধিক দোকানপাট বিভিন্ন পণ্য নিয়ে বসতে শুরু করেছে। আগামী ১৫ জানুয়ারি ওরস সমাপ্ত হবে। এ বাৎসরিক পবিত্র ওরসে আসার জন্য আশেকান ভক্তবৃন্দকে আমন্ত্রণ জানিয়েছেন দরবার শরীফের মোতাওয়াল্লি সৈয়দ সফিক আহম্মেদ (সফি) চিশ্তী।
-