মানবতার পরাজয়-
মানবতার পরাজয়
তাহমিনা বেগম গিনি
সমুদ্রতটে ভেসে আসা নিষ্প্রাণ শিশু আইলানকে
এখনো ভোলেনি বিশ্ববাসি।
একটি ছোট্ট মৃতদেহ পৃথিবী কাঁপিয়েছিল।
আজ শতক, হাজার, লক্ষ শিশু সাগরে নিক্ষিপ্ত হয়ে,
আগুনে পুড়ে, গুলি ও অস্ত্রের আঘাতে মৃত।
নামহীন- মনে করি শত শত আইলান।
মায়ের গর্ভে পাশবিক অত্যাচারে ভোরের সূর্য
দেখেনি সে শিশু।
মৃত মায়ের স্তন্যে খাদ্য খুঁজে ফেরে আজ ক্ষুধার্ত শিশু।
কোন পৃথিবীতে বেঁচে থাকবে? দোষ কি ছিল তার?
শুধু মুসলমান।
অহিংস বাণীর বুদ্ধ-“জীব হত্যা মহাপাপ”।
ধর্মের বাণী কি বদলে গেল?
এ কোন নারকীয় উল্লাস, হত্যা, ধ্বংস, পাশবিকতা-
কখন থামবে?
দেশ থেকে বিতাড়িত, নিরুদ্দেশ, ঠিকানাবিহীন এক
জাতি রোহিঙ্গা।
হে বিশ্বমানবতা; ধর্ম নয়, জাতি নয়, মানুষের তরে
মানবিকতার জন্য হাজার, লক্ষ, কোটি হাত বাড়াও,
সহমর্মিতা ও সমবেদনায়।
মোরা গর্বিত বাংলাদেশী।
সাধ্য যতটুকুন, অন্তরের ভালবাসা দ্বিগুন।
হিন্দু, মুসলমান, বৌদ্ধ নয় অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশে
আছে,- অভিন্ন এক ভাষা বাংলা, অশেষ ভালবাসা,
অনিমেশ দেশপ্রেম।
মানুষ মানুষের জন্য-কবি বলেছেন,
“বল কি তোমার ক্ষতি
অসহায় মানুষ যদি
পার হয় তোমাকে ধরে
জীবনের অথৈ নদী।”
বিধাতার কাছে প্রার্থনা, “হোক মানবতার জয়।”
-