বাহুবলে ১৮ দিনেও শ্রমজীবী শিশু শিবলু মিয়ার খোঁজ মেলেনি-
সন্তানকে হারিয়ে পাগলপ্রায় হয়ে পড়েছেন বাবা-মা
বাহুবলে ১৮ দিনেও শ্রমজীবী শিশু শিবলু মিয়ার খোঁজ মেলেনি
বাহুবল প্রতিনিধি ॥ বাহুবলে ১৮ দিনেও শ্রমজীবী শিশু শিবলু মিয়ার খোঁজ মেলেনি। সে তার পিতার সাথে লাকড়ি কাটতে গিয়ে গত ২৫ আগস্ট নিখোঁজ হয়। এ ব্যাপারে নিখোঁজ শিশু শিবলু মিয়ার পিতা গত সোমবার বাহুবল মডেল থানায় জিডি (জিডি নং- ৪৮৭) করেছেন। নিখোঁজ শিবলু মিয়া উপজেলার গোহারুয়া গ্রামের দরিদ্র আলাই মিয়ার পুত্র।
আলাই মিয়া জানান, ২৫ আগস্ট তিনি তার পুত্র শিবলু মিয়া (১১) ও সালমান মিয়াকে (৯) নিয়ে শিবপাশা গ্রামে লাকড়ি কাটতে যান। সেখান থেকে ঠেলাগাড়ি বোঝাই করে লাকড়ি নিয়ে বাবনাকান্দি গ্রামের বড় মসজিদের কাছে পৌঁছেন বেলা দেড়টার দিকে। মসজিদের কাছে ঠেলাগাড়ি দাঁড় করিয়ে ছেলে শিবলু মিয়াকে রেখে পাশের বাড়িতে যান আলাই মিয়া ও শিশুপুত্র সালমান মিয়া। কিছুক্ষণ পর ওই বাড়ি থেকে বের হয়ে এসে দেখতে পান ঠেলাগাড়ি, কুড়াল যথাস্থানে থাকলেও পুত্র শিবলু মিয়া নেই। এরপর আশপাশে পুত্র শিবলু মিয়াকে খোঁজতে শুরু করেন। কোথাও তার সন্ধান না পেয়ে বাড়ি ফিরে যান। বাড়িতে ফিরেও পুত্র শিবলু মিয়ার কোন সন্ধান না পেয়ে আবার বাবনাকান্দি গ্রামে যান। এরপর বাবনাকান্দি, শিবপাশা, হরিপাশা, কটিয়াদী, কাজীহাটা ও নন্দনপুরসহ আশপাশের গ্রামে মসজিদের মাইকযোগে নিখোঁজ সংবাদ প্রচার করেন। তিনি বলেন, মাইকিং ছাড়াও আত্মীয়-স্বজন, পরিচিতজনসহ সকল স্থানে খোঁজাখুজি করেও শিশুপুত্র শিবলু মিয়ার কোন সন্ধান পাইনি। এদিকে, শিবলু মিয়ার জন্য কান্নাকাটি করতে করতে আমার স্ত্রী মলজা খাতুন শয্যাশায়ী হয়ে পড়েছেন।

-
প্রথম পাতা