বহুলা বাইপাস এলাকায় এক গ্যারেজে চোর সন্দেহে ৩ যুবককে বেধড়ক মারপিট-
স্টাফ রিপোর্টার ॥ হবিগঞ্জ সদর উপজেলার বহুলা বাইপাস এলাকায় এক গ্যারেজে চোর সন্দেহে ৩ যুবককে ৩ ঘন্টা আটক রেখে মধ্যযুগীয় কায়দায় নির্যাতন করেছে একদল যুবক। খবর পেয়ে সদর থানার এসআই রুহুল আমিনের নেতৃত্বে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছে আহত অবস্থায় দুই চোরকে উদ্ধার করে হবিগঞ্জ সদর হাসপাতালে ভর্তি করে এবং ঘটনার সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে ৪ যুবককে আটক করে। এ সময় ওই গ্যারেজের মালিক পালিয়ে যায়। গতকাল মঙ্গলবার সন্ধ্যায় এ ঘটনা ঘটে।
সূত্র জানায়, হবিগঞ্জ আলিয়া মাদ্রাসার পশ্চিম দিকে বহুলা বাইপাস সড়কে নুর মিয়ার পুত্র আবুল কালামের একটি গ্যারেজ রয়েছে। আবুল কালাম ও তার লোকজন গতকাল মঙ্গলবার বিকাল ৩টায় অলিপুর এলাকা থেকে টমটম চোর সন্দেহে বহুলা গ্রামের রুশন আলীর পুত্র আব্দুল আওয়াল (২৫), পশ্চিম ভাদৈ গ্রামের কফিল উদ্দিনের পুত্র শরীফ উদ্দিন (২২) ও ছোট বহুলা গ্রামের আব্দুল আহাদের পুত্র আমির আলীকে (২০) একটি মাইক্রোবাসে তুলে নিয়ে আসে কালামের গ্যারেজে। সেখানে তাদের হাত পা বেধে বেধড়ক মারপিট করা হয়। তাদের চিৎকারে এলাকাবাসি সদর থানায় খবর দিয়ে এসআই রুহুল আমিনের নেতৃত্বে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে তাদেরকে আহত অবস্থায় উদ্ধার করে হবিগঞ্জ সদর হাসপাতালে ভর্তি করে। এ সময় আব্দুল আওয়াল আহত অবস্থায় কৌশলে পালিয়ে যায়। পরে সে হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়ে সটকে পড়ে। এদিকে এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে জাহির মিয়াসহ ৩ যুবককে আটক করা হয়েছে এবং ওই গ্যারেজের মালিক কালাম সটকে পড়েছে। আহত শরীফ ও আমির আলীকে সদর থানায় রাখায় হয়েছে। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত আটক জাহিরসহ ৩ যুবককে ছাড়িয়ে নিতে একটি মহল থানায় দৌঁড়ঝাপ শুরু করেছে। তবে পুলিশ জানায়, আহত শরীফ ও আমির আলীর অবস্থা আশংকাজনক।

-
প্রথম পাতা