আর্থিক সংকটের কারণে মাধবপুর পৌরসভার ৫৬ কর্মকর্তা কর্মচারির বেতন পাচ্ছেন না-
স্টাফ রিপোর্টার ॥ আর্থিক সংকটের কারণে মাধবপুর পৌরসভার ৫৬ কর্মকর্তা কর্মচারি প্রায় ১ বছর ধরে নিয়মিত বেতন পাচ্ছেন না। গত ৩ মাস ধরে বেতন পুরোপুরি বন্ধ রয়েছে। বেতন বন্ধ হওয়ার কারণে কর্মকর্তা ও কর্মচারিরা পরিবার পরিজন নিয়ে খুব কষ্টে দিন কাটাচ্ছেন। রাষ্ট্রীয় কোষাগার থেকে কর্মকর্তা কর্মচারিদের বেতন-ভাতা ও পেনশন সুবিধাদি প্রদানের দাবিতে দীর্ঘদিন ধরে সারা দেশের ন্যায় মাধবপুর পৌরসভার কর্মকর্তা কর্মচারিগণ বিভিন্ন  আন্দোলন কর্মসূচি পালন করে এলেও কোনো ফল হয়নি। সোমবার চাকুরি জাতীয়করণ ও বকেয়া বেতন পরিশোধের দাবিতে সারাদিন কর্মবিরতি পালন করেন তারা। এ কারণে মাধবপুর পৌরসভার সকল কর্মকান্ড বন্ধ ছিল। এতে পৌরবাসীর নাগরিক সেবা ব্যাহত হয়েছে। সারাদিন পৌরসভার বিভিন্ন কক্ষ তালাবদ্ধ ছিল।
মাধবপুর পৌরসভার সহকারী প্রকৌশলী শহিদুল ইসলাম জানান, পৌরসভার কর্মকর্তা কর্মচারিদের বেতন পৌর কর্তৃপক্ষ পরিশোধ করে আসছিল। কিন্তু এক বছর ধরে মাধবপুর পৌরসভায় পর্যাপ্ত তহবিল না থাকায় কর্মচারিদের বেতন অনিয়মিত হয়ে পড়ে। এর মধ্যে গত ৩ মাস ধরে ৫৬ জন কর্মকর্তা ও কর্মচারীর বেতন বন্ধ রয়েছে। এ কারণে তাদের পরিবার পরিজনের ভরনপোষণ এখন কষ্টসাধ্য হয়ে পড়েছে।
প্রশাসনিক কর্মকর্তা বিনয় রায় জানান, চাকুরি জাতীয়করণ ও বকেয়া বেতন পরিশোধ করা না হলে তাদের পক্ষে দায়িত্ব পালন করা অসম্ভব হয়ে পড়বে।
এ ব্যাপারে মাধবপুর পৌরসভার মেয়র হিরেন্দ্র লাল সাহা জানান, অন্যান্য সরকারি অফিসের কর্মকর্তা কর্মচারিরা বেতন ও অন্যান্য সুবিধাদি সরকারি কোষাগার থেকে পেয়ে থাকেন। পৌরসভার কর্মকর্তা ও কর্মচারিদের বেতন ও পেনশন ভাতাসহ অন্যান্য সুবিধাদি সরকারিভাবে পরিশোধ করা এখন সময়ের দাবি।

-
প্রথম পাতা