নবীগঞ্জে ‘ত্রাণবাহী’ গাড়িতে ভেজাল মসলা আটক ॥ ভেজাল সিন্ডিকেট ব্যবসায়ী বিপুল গোপ পলাতক-
উত্তম কুমার পাল হিমেল, নবীগঞ্জ থেকে ॥ নবীগঞ্জে ভেজাল মসলাসহ ত্রাণবাহী লিখা একটি ট্রাক আটক করেছে থানা পুলিশ। গতকাল সোমবার সকালে নবীগঞ্জ শহরের মধ্য বাজারে ভেজাল সিন্ডিকেট ব্যবসায়ী বিপুল গোপ মালামাল তার গোদামে ঢোকানোর সময় উপজেলা স্যানেটারী ইন্সপেক্টর নুরে আলম সিদ্দকীর নজরে পড়লে তিনি ট্রাকটি আটক করে থানা পুলিশে খবর দেন। পুলিশ এসে ১৫০ বস্তা ভেজাল মসলাসহ ট্রাকটি থানায় নিয়ে যায়।
বিভিন্ন সূত্র জানায়, নবীগঞ্জ শহরের ভেজাল সিন্ডিকেট ব্যবসায়ী হালিতলা গ্রামের বাসিন্দা বিপুল গোপ দীর্ঘদিন ধরে শহরে ভেজাল মসলা, তেলসহ বিভিন্ন মালামালের আমদানি ও রপ্তানী করে আসছেন। অনেকটা প্রকাশ্যে ভেজাল মাল বিক্রি করেন বিপুল গোপ। গতকাল সোমবার সকালে ভৈরব থেকে ত্রাণবাহী লেখা একটি ট্রাক প্রায় দেড় শত বস্তা ভেজাল মসলা বোঝাই করে নবীগঞ্জ আসে। এ সময় মধ্য বাজারস্থ তার গোদামে মসলা ঢোকানোর সময় উপজেলা স্যানেটারী ইন্সপেক্টর নুরে আলমের নজরে পড়ে। তাৎক্ষণিক তিনি উপজেলা নির্বাহী অফিসার তাজিনা সারোয়ারের সাথে যোগাযোগ করে মালামালসহ ট্রাকটি জব্দ করেন। অবস্থা বেগতিক দেখে বিপুল গোপ গা ঢাকা দেয়। খবর পেয়ে নবীগঞ্জ থানার এসআই কবির উদ্দিনের নেতৃত্বে একদল পুলিশ, পৌরসভার স্যানেটারী ইন্সপেক্টর সুকেশ চক্রবর্ত্তী ঘটনাস্থলে যান। এ সময় বিপুল গোপকে বাচাঁনোর জন্য অদৃশ্য শক্তিরা প্রাণপন চেষ্টা করে ব্যর্থ হন। পরে ট্রাকসহ ভেজাল মসলা ভর্তি বস্তা আটক করে থানায় নিয়ে যায় পুলিশ। দোকানের মালিককে না পেয়ে দোকানঘরটি তালাবদ্ধ করে সীলগালা করা হয়। পরে ব্যবসায়ী সমিতির জিম্মায় দোকান ঘরটি খোলে দেয়া হয়েছে। স্থানীয় ব্যবসায়ী ও লোকজন ভেজাল ব্যবসায়ী বিপুল গোপের শাস্তি দাবি করেন।
বিশ্বস্ত সূত্র জানায় ভেজাল মসলা ব্যবসায়ী বিপুল গোপের সাথে আরো কয়েকজন কালোবাজারী ব্যবসায়ী জড়িত রয়েছে। এ ব্যাপারে স্যানেটারী ইন্সপেক্টর নুরে আলম জানান, ভেজাল ব্যবসায়ী বিপুল গোপকে ধরার জন্য একাধিকবার চেষ্টা করেও সম্ভব হয়নি। গতকাল সোমবার হাতেনাতে ভেজাল মসলাভর্তি ট্রাক আটক করা হয়েছে। এ ব্যাপারে তার বিরুদ্ধে আইনী ব্যবস্থা নেওয়ার প্রক্রিয়া চলছে।

-