নবীগঞ্জের ইনাতগঞ্জ ও আউশকান্দি বাজারে জলাবদ্ধতা ॥ জনদুর্ভোগ চরমে-
এম এ আহমদ আজাদ, নবীগঞ্জ থেকে ॥ নবীগঞ্জ উপজেলার দুটি ব্যবসা বন্দর ঐতিহ্যবাহী ইনাতগঞ্জ ও আউশকান্দি হীরাগঞ্জ বাজারে জলাবদ্ধতায় ও কাদায় নাকাল অবস্থা। উপজেলার সবচেয়ে ব্যস্ততম বাজার দুটির ব্যবসায়ীরা এখন নিরুপায় হয়ে পড়েছেন কাদা আর পানির কাছে। এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে লিখিত দাবি জানিয়েও কোন লাভ হচ্ছে না বলে অভিযোগ তুলেছেন বাজার দুটির ব্যবসায়ীরা। অচিরেই বাজারগুলোর পানি নিস্কাশনের জন্য ড্রেনেজ ব্যবস্থা করা না হলে ভয়াবহ আকার ধারণ করবে এবং কাদার জন্য সাধারণ জনগণের চলাচল মুশকিল হবে। বাজার দুটিতে একটু বৃষ্টি হলেই পানি জমে সকল দোকানপাট বন্ধ হয়ে যায়। অনেক দোকানে পানি প্রবেশ করে মালামালসহ দামি জিনিসপত্র নষ্ট হচ্ছে। পানি যখন একটু কমে তখন কাদার জন্য চলাচল করা দুরুহ হয়ে পড়ে। এসব ব্যাপারে বাজারের ব্যবসায়ীরা সংসদ সদস্য, উপজেলা চেয়ারম্যান, ইউপি চেয়ারম্যানসহ প্রশাসনের বিভিন্ন দপ্তরে দাবি জানালেও শুধু আশার বাণী শোনে যাচ্ছেন। আউশকান্দি হীরাগঞ্জ বাজারের ব্যবসায়ী আব্দুল মুকিত বলেন, আমাদের বাজারে সঠিক ড্রেনেজ ব্যবস্থা না থাকায় পানি নিস্কাশন হয় না তাই অল্প বৃষ্টি হলেই জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়। আমরা স্থানীয় সংসদ সদস্যসহ অনেক জনপ্রতিনিধির কাছে দাবি করেছি আউশকান্দি বাজারে দীর্ঘ মেয়াদী প্রকল্পের মাধ্যমে ড্রেন নির্মাণের জন্য। ইনাতগঞ্জ বাজার ব্যবসায়ী সমিতির সাধারণ সম্পাদক প্রার্থী আশাইদ আলী আশা বলেন, ইনাতগঞ্জ বাজারটির জলাবদ্ধতা আর কাদায় ভরপুর হয়ে একদম নাকাল অবস্থা আমাদের বাজারে চলাচল করা মহামুশকিল এখানে দেখার কেউ নেই মনে হয়। আমরা অনেক উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাসহ ইউপি চেয়ারম্যানকে বাজারটি সংস্কারসহ ড্রেনেজ ব্যবস্থা করার জন্য বলেছি। কিন্তু এখন পর্যন্ত কোন কাজ হয়নি। বর্ষা মওসুম শুরু হয়েছে, বাজারে আর চলাচল করা যাবে না। ব্যবসায়ী রাকিল হোসেন বলেন, নবীগঞ্জের অন্যতম ব্যবসা বন্দর হচ্ছে ইনাতগঞ্জ। এখান থেকে সরকার বড় অংকের রাজস্ব পায় কিন্তু বাজারটির আশানুরুপ উন্নয়ন হচ্ছে না। ব্যসবায়ীদের বাঁচানোর জন্য অচিরেই উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি দেয়া প্রয়োজন। আউশকান্দি হীরাগঞ্জ বাজার ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি মুরশেদ আহমদ বলেন, ড্রেন নির্মাণ না হলে বাজারের শত শত ব্যবসায়ী বর্ষা মওসুমে বিশাল অংকের ক্ষতিগ্রস্ত হবেন। একটু বৃষ্টি হলেই মাছ বাজারসহ বিভিন্ন গলিতে পানি জমে থাকে। আমরা এব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী অফিসার, এলজিইডিসহ সকল জনপ্রতিনিধিদের জানিয়েছি সবাই আশ্বাস দিলেও কেউই আমাদের দাবি পূরন করেননি। এই বর্ষা মওসুমে ড্রেন নির্মাণের জন্য দ্রুত দাবি জানাচ্ছি। আউশকান্দি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মুহিবুর রহমান হারুন বলেন, আমরা আউশকান্দি বাজারটি সংস্কারের জন্য উপজেলা প্রশাসনসহ উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানিয়েছি। আশা করি কিছু দিনের মধ্যে ড্রেন নির্মাণের কাজ শুরু হলে আর জলাবদ্ধতা থাকবে না। আমরা মাছ বাজার ড্রেন নির্মাণ করেছি বাকিটা প্রক্রিয়াধীন আছে। এব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী অফিসার তৌহিদ বিন হাসান বলেন, আমরা বাজার দুটির সমস্যার কথা জেনেছি। ব্যবসায়ীরা সহযোগিতা করলে ড্রেনেজ ব্যবস্থা করা হবে। ইনাতগঞ্জ বাজারটি নিয়ে সমস্যা রয়েছে পরিচালনা কমিটি নিয়ে তাই এখানে সব ব্যবসায়ীদের নিয়ে বসা হবে। এ ব্যাপারে স্থানীয় সংসদ সদস্য এম, এ মুনিম চৌধুরী বাবু বলেন, বাজারগুলোর উন্নয়নের জন্য সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ে আলোচনা করে ব্যবস্থা নেবো। আশা করছি অচিরেই এ সমস্যার সমাধান হবে।
-