রঘুনন্দন পাহাড়ের কাছে পাওয়া অজ্ঞাত যুবতীর লাশের পরিচয় পাওয়া গেছে-
স্টাফ রিপোর্টার ॥ হবিগঞ্জ জেলার সংরক্ষিত বনাঞ্চল রঘুনন্দন পাহাড়ের টিলার বেত বাগানের ভেতরে উদ্ধারকৃত যুবতীর (২৫) পরিচয় পাওয়া গেছে। যুবতী শায়েস্তাগঞ্জের নুরপুর ইউনিয়নের পুরাসুন্দা গ্রামের নিরাঞ্জন সরকারের মেয়ে সুমা রানী সরকার। সুমার পিতা মাতা চুনারুঘাট থানায় যুবতীর ছবি ও পরনের কাপড় চোপড় দেখে তার মেয়ে বলে সনাক্ত করেন। গত ৪ জানুয়ারি শুক্রবার শৈলজুড়া বোনের বাড়িতে বেড়াতে গিয়ে নিখোঁজ হয় সুমা। গত ৬ জানুয়ারি চুনারুঘাট উপজেলার রঘুনন্দন পাহাড়ের মাধবপুর সীমান্তবর্তী এলাকার রতনপুর কবরস্থান সংলগ্ন বেত বাগানের ভেতরে লাশ দেখে স্থানীয় পুলিশকে খবর দেয় শ্রমিকরা। পরে চুনারুঘাট থানা পুলিশ লাশটি উদ্ধার করে বেওয়ারিশ হিসেবে আনজুমানে মুফিদুলের মাধ্যমে সৎকার করে। সুমা রানীর ৩ বছরের একটি কন্যা সন্তান রয়েছে। সুমা রানী ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইল থানার নিয়ামতপুর গ্রামের বাদল সরকারের সাথে বিাবহ হয়। এদিকে স্বামী বাদল সরকারে সাথে বনিবনা হচ্ছিল না বলে দীর্ঘ সাত মাস যাবত পিত্রালয়ে অবস্থান করছিল। এ ঘটনায় মা সন্ধ্যা রাণী সরকার বাদী হয়ে অজ্ঞাতদের আসামী করে চুনারুঘাট থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন। এ বিষয়ে চুনারুঘাট থানার এসআই সজীব দেব রায় জানান, ধর্ষণের পর হত্যা হয়েছে কি-না ময়না তদন্তের রিপোর্টের পর বলা যাবে। চুনারুঘাট থানার ওসি কেএম আজমিরুজ্জামান জানান, ধারণা করা হচ্ছে, কোনো পরকিয়ার ঘটনায় মেয়েটিকে হত্যা করে লাশ ফেলে রেখে গেছে দুর্বৃত্তরা। লাশের পরিচয় ও হত্যার রহস্য জানার চেষ্টা চলছে। আশা করি অল্প সময়ের মধ্যে রহস্য উদঘাটন করে আসামী ধরতে পারব।

-