নবীগঞ্জের কাদির হত্যাকান্ড ॥ প্রেমিকা ফুলেছা বেগম ৩ দিনের রিমান্ডে-
নবীগঞ্জ প্রতিনিধি ॥ নবীগঞ্জ উপজেলার দেবপাড়া ইউনিয়নের দক্ষিণ হোসেনপুর গ্রামের প্রবাসী আব্দুল কাদির (৩৫) মৃত্যুর ঘটনায় দায়েরকৃত মামলায় ফুলেছা বেগমকে ৩ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন বিজ্ঞ আদালত। গত বৃহস্পতিবার বিকালে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ওসি (তদন্ত) গোলাম দস্তগীর আহমেদ রিমান্ডের আসামী ফুলেছা বেগমকে থানায় নিয়ে আসেন। এলাকাবাসী জানিয়েছেন, ফুলেছা বেগম খুবই দুরন্ত ও চতুর। তাকে ব্যাপকভাবে জিজ্ঞাসাবাদ করলেই হত্যাকান্ডের ঘটনার মোটিভ উদঘাটিত হতে পারে।
উল্লেখ্য, গত ৩রা এপ্রিল বুধবার সকালে গোয়াল ঘরের পাশে বারান্দা রেুম থেকে কাদিরের মৃত দেহ উদ্ধার করেছিল পুলিশ। মৃত আব্দুল কাদির ওই গ্রামের মৃত আমীর উদ্দিনের ছেলে। সে দীর্ঘদিন কুয়েত, লন্ডন ও দুবাই অবস্থান করে প্রায় ১ বছর পুর্বে বাড়িতে আসে। তার পরিবারের লোকজনের অভিযোগ প্রতিপক্ষ
লোকজন পরিকল্পিতভাবে বালিশ চাপা দিয়ে শ^সরোদ্ধ করে হত্যা করা হয়েছে। এ ব্যাপারে নিহতের ভাই আবুল হাসান বাদী হয়ে ৪ জনের নাম উল্লেখ্য করে এবং অজ্ঞাতনামা কয়েক জনের বিরুদ্ধে নবীগঞ্জ থানায় মামলা দায়ের করেন। মামলার তদন্ত কর্মকর্তা মোবাইল কল লিষ্টের সুত্রধরে গত মঙ্গলবার বিকালে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য একই গ্রামের ফুলেছা বেগম নামে এক মহিলাকে থানায় নিয়ে আসেন। পুলিশ সুত্রে জানাযায়, ফুলেছা বেগমের সাথে মৃত আব্দুল কাদিরের গভীর সম্পর্ক ছিল। গত মাসের কল লিষ্ট অনুযায়ী অসংখ্যবার তাদের সাথে ফোনালাপ হয়েছে। এমনকিমৃত্যুর কয়েক ঘন্টা আগেও  আব্দুল কাদিরের সাথে ফুলেছা বেগমের ফোনালাপ হয়। এদিকে কথিত প্রেমিকা ফুলেছা বেগম গ্রেফতারে এলাকাবাসীর মাঝে স্বস্তি এসেছে। অভিযোগে প্রকাশ, একই গ্রামের মৃত কালা মিয়ার ছেলে সফিক মিয়াগংদের সাথে দীর্ঘদিন ধরে জমিজমা নিয়ে বিরোধ চলে আসছে আব্দুল কাদির পরিবারের। তাদের মধ্যে একাধিক মামলা মোকদ্দমাও রয়েছে।
-