হবিগঞ্জবাসী যেন উন্নত বিদ্যুৎ ব্যবস্থার সম্মানিত গ্রাহক হতে পারেন-
হবিগঞ্জের বিদ্যুৎ ব্যবস্থা নিয়ে অভিযোগ-ক্ষোভের শেষ নেই। ঘন ঘন বিদ্যুত বিভ্রাট, লো ভোল্টেজ, ট্রান্সফরমার সংকট, ৩৩ কেভির লাইনে বিভ্রাট নিত্য-নৈমত্তিক ঘটনা। এসব নিয়ে বিদ্যুৎ গ্রাহকদের সবসময়ই ক্ষোভ। দেশের বিদ্যুৎ ব্যবস্থার মূল উপাদান হলো গ্যাস। এই গ্যাসের সিংহভাগ যোগান দেয় হবিগঞ্জ। অথচ হবিগঞ্জের বিদ্যুতের বেহাল অবস্থা। সময় সময় অনেক প্রকল্প হাতে নেয়া হয়েছে বিদ্যুৎ উন্নয়নে। কিন্তু দুঃখজনক হলেও সত্য এগুলোতে বিদ্যুতের সামগ্রিক উন্নয়ন এতটা হয়নি। উৎপাদান বাড়লেও সরবরাহ ব্যবস্থায় দ্রুত থাকায় তা কোনও কাজে আসেনি। অবশ্য এটা ঠিক, এখন আর লোড শেডিং হয় না। মূলত সরবরাহ লাইন উন্নত না হওয়া এবং হবিগঞ্জে সাব স্টেশন নির্মাণ না হওয়া এসবের মূল কারণ। তবে আশার কথা- ২০১৬ থেকে একটি প্রকল্পের কাজ হবিগঞ্জে বর্তমানে চলমান আছে। এনিয়ে গতকাল দৈনিক খোয়াইয়ে একটি খবর প্রকাশিত হয়েছে। যাতে বলা হয়েছে ৩৩ কেভি ও ১১ কেভি লাইনের তার এবং পোল পুরোপুরি বদলে ফেলা হচ্ছে। ট্রান্সফরমার বাড়ানো হচ্ছে ব্যাপকভাবে। আমরা আশা করবো কর্তৃপক্ষ যেন চলমান এই কাজে শক্ত মনিটরিং করেন। যাতে করে প্রকল্পের কাজটি সময়মতো ও মানসম্মতভাবে শেষ হয়। ২০২১ সালের ফেব্রুয়ারিতে প্রকল্পটি শেষ হলে যেন আর বিদ্যুৎ ব্যবস্থা নিয়ে কোনও অভিযোগ লিখতে বা বলতে না হয়। হবিগঞ্জবাসী যেন উন্নত বিদ্যুৎ ব্যবস্থার সম্মানিত গ্রাহক হতে পারেন।

-