চুনারুঘাটে চিকিৎসা পাচ্ছেন না রোগীরা-
চুনারুঘাট প্রতিনিধি ॥ চুনারুঘাট উপজেলায় ডাক্তার পাচ্ছেন না সাধারণ সর্দি জ্বর কাশিসহ নানা রোগে আক্রান্তরা। গত কয়েক দিন ধরেই উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে কোন রোগী নেই। ফলে আসছেন না অনেক ডাক্তার। যারা আছেন ইমার্জেন্সিতে দায়িত্ব পালন করছেন। তারা সর্দি কাশি কিংবা জ্বরে আক্রান্ত রোগী আসলেই বলছেন বাড়িতে বসে হটলাইনের মাধ্যমে চিকিৎসা নিতে। কেউ কেউ এন্টিবায়েটিক কিংবা প্যারাসিটামল জাতীয় ওষুধ লিখে বিদায় করে দিচ্ছেন।
এদিকে উপজেলার কোন প্রাইভেট ক্লিনিকেই গত শুক্রবার থেকে ডাক্তার পাওয়া যাচ্ছে না। অথচ গত কয়েকদিন ধরে রোগীরা ঘুরছেন ক্লিনিকে ক্লিনিকে। ক্লিনিকের ম্যানেজার বা মালিক জানাচ্ছেন জেলা কিংবা বিভাগীয় বা ঢাকা থেকে যেসব ডাক্তার আসতেন, তারা এখন আসছেন না। দেশের এ পরিস্থিতি উত্তোরণ না ঘটলে ডাক্তার আসবেন না। এ অবস্থায় সবচেয়ে বেশি সমস্যায় পড়েছে প্রেগন্যান্সি কিংবা বয়স্ক হার্টের এবং ডায়াবেটিকস এ আক্রান্ত রোগীরা। প্রতি সপ্তাহে বৃহস্পতিবার থেকে শনিবার পর্যন্ত উপজেলার ৮ থেকে ১০টি ক্লিনিকে ঢাকাসহ বিভিন্ন বিভাগীয় শহর হাসপাতালের নামী দামী ৩০ থেকে ৩৫ জন ডাক্তার আসেন। কিন্তু গত ২৬ মার্চের পর থেকে কোন ক্লিনিকেই ডাক্তার না আসায় চরম বিপাকে পড়েছেন গ্রামের শতশত রোগী। গতকাল রবিবার শহরের উত্তর বাজার এলাকায় সেবা, ইউনিকেয়ার, স্কয়ার, এমকে ডায়াগনস্টিকসহ কয়েকটি ক্লিনিক ঘুরে দেখা যায়, কোন ডাক্তার নেই। কোন কোন ক্লিনিকে যারা আছেন তারা সকলেই স্থানীয় হাসপাতালের বা ব্যক্তিগত চিকিৎসক। অনেক রোগী এসে ঘুরে যাচ্ছেন।
এ বিষয়ে সেবা ডায়াগনস্টিক সেন্টারের মালিক কামরুল ইসলাম জানান, দেশ এ পরিস্থিতি থেকে উত্তোরণ না ঘটলে দূর-দুরান্তের ডাক্তার আসবেন না। স্থানীয় ডাক্তার আছেন তারাই এখন রোগী দেখছেন।  

-