রাতে খাবার বিতরণে জেলা প্রশাসক, আসছে আরো ২ হাজার পিপিই-
স্টাফ রিপোর্টার ॥ করোনা পরিস্থিতিতে হবিগঞ্জ শহরের গরুর বাজার, বগলা বাজার এবং বানিয়াচং উপজেলার আলমপুর ও সুবিদপুর এলাকায় ১১৫ জন কর্মহীন মানুষের মাঝে প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিল থেকে প্রাপ্ত খাদ্য বিতরণ করেছেন জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ কামরুল হাসান।
গতকাল রবিবার সন্ধ্যা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত তিনি এসব বিতরণ করেন। ১১৫ জনকে দেয়া প্রতিটি প্যাকেটে রয়েছে ১০ কেজি চাউল, ২ কেজি আলু ও ১ কেজি ডাল। এ সময় হবিগঞ্জ পৌরসভার মেয়র মোঃ মিজানুর রহমান ও বানিয়াচং উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আবুল কাশেম চৌধুরীসহ প্রশাসনের অন্যান্য কর্মকর্তাবৃন্দ।
জেলা প্রশাসক বলেন করোনা মোকাবিলায় রাত-দিন নিরলস কাজ করে যাচ্ছে হবিগঞ্জের জেলা প্রশাসন ও ৯টি উপজেলা প্রশাসনে দায়িত্বপ্রাপ্তরা। এরই ধারাবাহিকতায় আমরা প্রধানমন্ত্রীর তহবিল থেকে পাওয়া এসব খাদ্য বিতরণ করছি। তিনি আরো জানান, করোনা মোকাবিলায় ডাক্তার ও স্বাস্থ্য কর্মীদের মাঝে ইতোমধ্যেই ৩৬০টি পিপিই বিতরণ করা হয়েছে। আরো ৪৩৫টি হাতে মজুদ রয়েছে। এছাড়া আরো ৫ হাজার পিপিইর জন্য পাঠানো হয়েছে চাহিদাপত্র। আশা করা যাচ্ছে অল্প দিনের মধ্যেই আরো প্রায় দুই হাজার পিপিই হাতে আসবে।
জেলা প্রশাসক জানান, পূর্বের পাঠানো ৫ জনের নমুনা নেগেটিভ আসার পর আরো দুইজনের নমুনা পরীক্ষার জন্য ঢাকায় প্রেরণ করা হয়েছে। করোনা ভাইরাস মোকাবিলায় সকলের সচেতনতা কামনা করেন তিনি। বিশেষ করে আগামী অন্তত ১০ দিন জেলাবাসী যেন সর্বোচ্চ সতর্কতা অবলম্বন করেন সেজন্য অনুরোধ জানান।

-